মেনু নির্বাচন করুন
পাতা

পূর্ববর্তী মামলার রায়

বাদী- কালাম গাজী, পিতা- মৃত: সাত্তার গাজী, সাং- রামনগর, উপজেলা- পাইকগাছা, জেলা-খুলনা। বিবাদী- কওছার সরদার, পিতা-মৃত: আলকাম সরদার, সাং- রামনগর, উপজেলা-পাইকগাছা, জেলা-খুলনা। বাদী কৃর্তক বিবাদীর বিরুদ্ধে অত্র পরিষদে পাওনা টাকা সংক্রান্ত এক কেস দাখিল করেন। কেসটি দেখলাম। বিচার মিমাংসার জন্য উভয়পকে সমন দেওয়ার জন্য বলাগেল। ধার্যদিন-০৬-০৭-২০১৬ বাদী ও বিবাদী হাজির। পদ্বয়ের বক্তব্য শুনলাম। আগামী বাংলা ৩০শে আষাঢ় এর মধ্যে পরিষদের মাধ্যমে বাদীর প্রাপ্য ১৯,০০০/= (ঊনিশ হাজার) টাকা পরিশোধ করিতে বাধ্য থাকিবেন। মন্তব্য গত ২০-০৭-২০১৬ তারিখে বিবাদী ১০,০০০/= (দশ হাজার) টাকা অত্র আদালতে জমা প্রদান করে বক্রি ৯,০০০/= (নয় হাজার) টাকা বারবার তাগেদা দেওয়া সত্বেও জমা প্রদান করে নাই। বাদীর প্রাপ্য টাকা আদায়ের স্বার্থে উপযুক্ত আদালতের আশ্রয় নেওয়ার জন্য বলা গেল। বাদী- ভক্ত মল্লিক, পিতা-মৃত: কৃষ্ণপদ মল্লিক, সাং- নাবা উপজেলা- পাইকগাছা, জেলা-খুলনা। বিবাদীঃ- ১। সুভাষ বৈরাগী, ২। অজিত বৈরাগী, ৩। রনজিৎ বৈরাগী, ৪। সনজিত বৈরাগী, ৫। স্বপন বৈরাগী, সর্বপিতা- মৃত: নরেন্দ্র বৈরাগী, সর্ব সাং- কাশিমনগর উপজেলা-পাইকগাছা, জেলা-খুলনা। বাদী অত্র আদালতে বিবাদীগনের বিরুদ্ধে বসত বাড়ীর সিমানা, মামলা,হামলা ও হুমকি সংক্রান্তে একটি কেস দাখিল করেন। কেসটি দেখলাম। কেসটি বিচার মিমাংসার জন্য উভয়পকে সমন প্রদান করা হউক। ধার্যদিন-১০-০৭-২০১৬ ইং। সমন জারী হয়ে ফেরত এসেছে। র্ধাদিন বাদী হাজির। বিবাদীগন সময়ের জন্য আবেদন করিযাছে। আবেদন মঞ্জুর। পরবর্তী ধার্যদিন-২০-৭-১৬ বাদী হাজির। বিবাদী হাজির নহে। পরবর্তীতে ধার্যেিদন সকল বিবাদীগনকে আদালতে হাজির থাকার জন্য জরুরী নোটিশ করার সিদ্ধান্ত হইল। ধার্যদিন-৩০-৮-১৪ বাদী হাজির। বিবাদী হাজির নহে। বাদী গত ইং-০৬-০৭-২০১৬ বিবাদীগনরে বিরুদ্ধে অত্র আদালতে একটি অভিযোগ দাখিল করেন। অভিযোগটি নিষ্পত্তি করার জন্য উভয়পকে গত ০৬-০৭-২০১৬, ১০-০৭-২০১৬ এবং অদ্য ২০-০৭-২০১৬ তারিখে অত্র আদালতে হাজির হওয়ার জন্য সমন জারি করা হয়। কিন্তু বাদী প্রতি ধার্য তারিখে হাজির হইলেও বিবাদী কোন ধার্য তারিখকে অত্র আদালতে হাজির হয় নাই। বাদী তার অভিযোগে উল্লেখ করেন যে, বিবাদীগন তার জমির বসত বাড়ীর সীমানা নিয়া বিভিন্ন প্রকার হুমকি ধামকিসহ মামলা করার হয়রানী হতে মুক্তি পেয়ে সুষ্ঠুভাবে বসবাস করার জন্য আবেদন করেন। কিন্তু বিবাদীর বেআইনী কর্মকান্ডের জন্য মামলাটি নিষ্পত্তি করা সম্ভব হইল না। বিধায় উচচ আদালতের আশ্রয় নেওয়ার জন্য বাদীকে পরামর্শ প্রদান করা গেল।


Share with :

Facebook Twitter